সফলতার আরেক নাম রাহুল দ্রাবিড়

Share:

সফলতার আরেক নাম রাহুল দ্রাবিড়

Rahul Dravid birthday
Rahul-dravid-child-photo
আজ হলো ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেট খেলোয়ার রাহুল দ্রাবিড়ের জন্মদিন। তিনি এমনই একজন খেলোয়াড় যিনি ব্যর্থতার আঙুল ধরে চলতে চলতে সাফল্যের চূড়ান্ত  সীমানায় পৌঁছেছেন।

               রাহুল দ্রাবিড় ১৯৭৩ সালে ১১ জানুয়ারি মধ্যপ্রদেশের ইন্দোর এ একটি ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পরে কর্মসূত্রে উনার বাবা কর্নাটকের ব্যাঙ্গালুরুতে চলে আসে এবং সেখানে দ্রাবিড় বড় হয়ে ওঠেন।উনার বাবার নাম ছিল শরৎ দ্রাবিড় যিনি একটি জ্যাম কোম্পানিতে কাজ করতেন আর এই সূত্রে তার নাম পড়ে যায় জেমি । মায়ের নাম ছিল পুষ্পা দ্রাবিড় যিনি একটি ইউনিভারসিটিতে আর্কিটেকচার প্রফেসর ছিলেন।

              রাহুল দ্রাবিড় বেঙ্গালুরুর "ST Joseph's boy's high school"পড়াশোনা করেন এবং স্কুল শেষ হওয়ার পরে তিনি ST  Joseph's  কলেজে ই তার গ্রেজুয়েশন কমপ্লিট করেন।

              মাত্র ১২ বছর বয়সে তিনি প্রথম ক্রিকেটের হাতে খড়ি দেন। তিনি কর্নাটকের হয়ে আন্ডার  ১৫,১৭,১৯  খেলেছেন। চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে একবার খেলার সময়  keki Tarapores  হাত ধরে তার ক্রিকেট জীবনের অন্য এক যাত্রা শুরু হয়।

                দ্য গ্রেট ওয়াল , জেমি, মিস্টার ডিপেন্ডেবল  এই তিনটি নামের মানুষ কিন্তু একজনই আর তিনিই হলেন রাহুল দ্রাবিড়।

                তিনি প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন ১৯৯৬ সালের ২০ জানুয়ারি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। 
 প্রথম ওডিআই ম্যাচ খেলেছিলেন ১৯৯৬ সালের ৩ এপ্রিল শ্রীলংকার বিরুদ্ধে ওই সময় তিনি অনেক চেষ্টা করেও সাফল্য অর্জন করতে পারছিলেন না। বারবার উনাকে টিমের বাইরে রেখে দেওয়া হয়েছিল । তারপর অর্থাৎ দুই বছর কঠোর অনুশীলনের পরে যখন তিনি ১৯৯৮ _১৯৯৯ সালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওডিআই ম্যাচ খেলেন ওই সময়টা তার ক্রিকেট জীবনের এক অভূতপূর্ব পরিবর্তন ঘটে তারপর থেকে উনাকে পেছনে ফিরে তাকাত হয়নি। ওই সময় তিনি পাঁচটি ম্যাচ খেলেছিলেন এবং দুইটি ম্যাচে সেঞ্চুরি করে ৩০৯ রান করেছিলেন। আর যার জন্য ওনাকে ম্যান অব দ্যা সিরিজ দেওয়া হয়েছিল।

                 রাহুল  দ্রাবিড় শেষ টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন ২০১২ সালের ২৪ জানুয়ারি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এবং লাস্ট ওডিআই ম্যাচ খেলেছিলেন ২০১১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে।


               রাহুল দ্রাবিড় ১০৮৮৯ রান সহ ৩৪৪ টি ম্যাচ খেলেছিলেন যার মধ্যে সেঞ্চুরি ছিল ১২ টি আর হাফ সেঞ্চুরি ৮৩ টি। 

              সারা বিশ্বে এমন তিনজন খেলোয়াড়ই আছেন যারা টেস্ট ম্যাচ এবং ওডিআই ম্যাচ মিলিয়ে ১০ হাজারেরও বেশি রান করেছেন এদের মধ্যে তিনজন হলেন শচীন তেন্ডুলকর , ব্রেন লারা এবং রাহুল দ্রাবিড়।


                তিনি এমনই একজন ক্রিকেটার যিনি এমন কতগুলি রেকর্ড করে গেছেন যেটি ভাঙ্গা এখন পর্যন্ত কোন ক্রিকেটারের পক্ষে সম্ভব হয়ে উঠেনি।  ২৮৬ টি টেস্ট ম্যাচে কখনো মিডল স্টাম্প আউট হন নি।তিনি তার ক্রিকেট জীবনে ৩১২৫৮ টি বল খেলে ৪০১৫২ মিনিট মাঠে ছিলেন তার জন্যই তাকে দ্যা গ্রেটেস্ট ওয়াল বলা হয়।
                ১৯৯৮ সালের অর্জুন ২০০৩ সালে পদ্মশ্রী এবং ২০১৪ সালে পদ্মভূষণ উপাধিতে ভূষিত হন।


               তার ব্যক্তিগত জীবনের কথা বলতে গেলে তিনি ২০০৩ সালে বিয়ে করেন এবং উনার স্ত্রী একজন ডাক্তার। বর্তমানে তিনি ভারতের ক্রিকেট দল ঔ আন্ডার ১৯ হেড কোচ।


               আজকে রাহুল দ্রাবিড়ের জন্মদিনে উনার জীবনী থেকে আমাদের এইটুকু শিক্ষালাভ অবশ্যই করতে হবে যে কোন কিছু সাফল্য পেতে হলে সাফল্যের পেছনের ব্যর্থতাকেও আমাদের সাথে করে চলতে হবে। ব্যর্থতা পাশে থাকলেই সাফল্য যে কতটা আনন্দের, কতটা গর্বের আমরা সবাই বুঝতে পারব । তবে একবার ব্যর্থ হলে জীবনের পথ চলা বন্ধ করে দিলে হবে না। ধৈর্য রেখে প্রত্যেকটা মানুষকে এগিয়ে যেতে হবে তবেই  সুন্দর করে জীবনটাকে গুছিয়ে তোলা সম্ভব হবে।

কোন মন্তব্য নেই

Please dont enter any spam link in the comment box.

_M=1CODE.txt Displaying _M=1CODE.txt.